SuperCash

Find Here your Favorite Games, Apps, Apk, WP theme, Free Hosting And More

আযীযুল মুবতাদী বা মীযানুস্_সরফ ও মুনশায়িব পিডিএফ বই
আযীযুল মুবতাদী বা মীযানুস্_সরফ ও মুনশায়িব পিডিএফ বই

আযীযুল মুবতাদী বা মীযানুস্‌সরফ ও মুনশায়িব পিডিএফ বই

kowmi pdf book

সমস্ত প্রশংসা বিশ্বজগতের প্রতিপালক আল্লাহ তা’আলারই জন্য এবং পরকালের কল্যাণ মুত্তাকীদের জন্য। আর সালাত ও সালাম বর্ষিত হােক আল্লাহ তা’আলার রাসূল হযরত মুহাম্মদ (সাঃ)-এর ওপর এবং তার পরিবারবর্গ ওসাহাবায়ে কিরামদের ওপর। আযীযুল মুবতাদী বা মীযানুস্‌সরফ ও মুনশায়িব পিডিএফ বই ডাউনলোড করুন।

মীযানুস্‌সরফ ও মুনশায়িব

ইলমুস সরফ -এর সংজ্ঞা, আলােচ্য বিষয় ও উদ্দেশ্য (ইলমুসসরফ)-এর সংজ্ঞা সরফের শাব্দিক অর্থ ও (সারফুন) শব্দের অর্থ-ঘুরানাে, ফেরানাে, পরিবর্তন হওয়া, রূপান্তর করা ইত্যাদি। যেহেতু – (ইলমুস্সরফ)-এর মধ্যে শব্দের পরিবর্তনের নিয়ম নিয়ে আলােচনা হয়, সে জন্যে এ শাস্ত্রকে । (ইলমুসসরফ) বলে নামকরণ করা হয়েছে। সরফের পারিভাষিক অর্থ যে শাস্ত্র শিক্ষা করলে শব্দ গঠন ও পরিবর্তনের | নিয়ম জানা যায়, তাকে (ইলমুস্সরফ) বলে।বা আলােচ্য বিষয় আরবী ভাষার শব্দাবলী – ইলমুস্সরফ)-এর আলােচ্য বিষয়। বা উদ্দেশ্য ও আরবী ভাষার শাব্দিক ভুল-ভ্রান্তি হতে মস্তিষ্ককে রক্ষা করা

Mizanus Saraf and munshayeb pdf book

কালিমা – এর সংজ্ঞা ও যে শব্দ (অর্থাৎ, একাধিক শব্দের যুক্তরূপ নয়) বা একক এবং অর্থবােধক, তাকে বা পদ বলে। এর প্রকারভেদ বা পদ তিন প্রকার ঐ কে বলে, যা অন্য শব্দের সাহায্য ছাড়াই নিজের অর্থ বুঝায় এবং তার অর্থের মধ্যে অতীত, বর্তমান বা ভবিষ্যৎ কালসমূহের কোন কাল পাওয়া যায় না। যেমন- (একজন পুরুষকে বুঝায়)।

মীযানুস্‌সরফ ও মুনশায়িব পিডিএফ বই

কে বলে, যা অন্য শব্দের সাহায্য ছাড়া নিজের অর্থ বুঝায় এবং তার অর্থের মধ্যে তিন কালের কোন একটি কাল পাওয়া যায়। যেমন৩১ (সে প্রহার করল) ঐ কে বলে, যা অন্য ‘বা পদের সাহায্য ব্যতীত নিজের অর্থ। বুঝাতে পারে না। যেমন অর্থ- থেকে, হতে। কিন্তু কোথা থেকে? যদি বলা। হয় তাহলে বুঝা যায় ফেনী থেকে।

মীযানুস্‌সরফ ও মুনশায়িব পিডিএফ বই

(রূপান্তরশীল ক্রিয়ার আলােচনা) সমস্ত রূপান্তরশীল ক্রিয়া কালের সাথে সম্পর্ক রাখা হিসেবে তিন প্রকার) (1) (অতীত কাল), (2) (ভবিষ্যৎ কাল), (৩) (বর্তমান কাল)। এ তিন প্রকারের ব্যতীত অন্য যতগুলাে আছে, তার সবগুলাে। উক্ত তিন প্রকারের থেকে গঠিত হয়।

১. (অতীত কালবাচক ক্রিয়া) যে L বা ক্রিয়া অতীত কালের সাথে সম্পর্ক রাখে অর্থাৎ, যে বা ক্রিয়া দ্বারা অতীত কালে কোন কাজ করেছে বা হয়েছে বুঝায়,তাকে (অতীত কালবাচক ক্রিয়া) বলা হয়। এর মূল অক্ষরের সংখ্যা কম হােক বা বেশি হােক তার শেষ অক্ষরে সব সময় : (যবর) হবে। যেমন-এর ওযনে ও (সে। মারল); -এর ওযনে (সে শুনল) – এর ওযনে (সে সম্মানিত হল); .-এর ওযনে (সে উত্তেজিত করল)।

মীযানুস্‌সরফ ও মুনশায়িব পিডিএফ বই ডাউনলোড করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

';

MY NEW STORIES